26/03/2019 , ঢাকা

উপজেলা নির্বাচনে লড়ছেন স্কুলশিক্ষিকা রোমানা


প্রকাশিত: 26/03/2019 16:09:52| আপডেট:

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি: বগুড়ার ধুনট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন রোমানা আফরোজ। যৌন হয়রানী, বাল্যবিয়ে, নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ এবং নারী শিক্ষার প্রসার, নির্যাতিত ও অবহেলিত নারীর অধিকার বাস্তবায়নের ব্রত নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অংশ নিচ্ছেন তিনি।

জানা যায়, রোমানা আফরোজ পেশায় একজন স্কুল শিক্ষক। স্থানীয় একটি প্রাইভেট স্কুলে তিনি শিক্ষকতা করেন। শিক্ষা জীবনে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছেন। তিনি ধুনটের সাংবাদিক আমিনুল ইসলামের শ্রাবণের সহধর্মিনী। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী এই তরুণীর প্রিয় পেশা শিক্ষকতা। শিক্ষার আলোয় সমাজ উন্নয়নের কর্মী হিসেবে কাজ করতে ভালবাসেন রোমানা আফরোজ। তারই ধারাবাহিকতায় আসন্ন ধুনট উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

রোমানা আফরোজ জানান, গ্রামীণ জনপদের নারীরা সমাজের অন্ধকারে বন্দি রয়েছে। শিক্ষার আলো ছাড়া এসব নারীর মুক্তি সম্ভব নয়। অধিকাংশ নারীরা উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের আগেই ঝড়ে পড়ে।

তিনি বলেন, নির্বাচিত হলে ধুনট উপজেলায় নারীর উচ্চ শিক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ করবেন। এজন্য যৌন হয়রানী, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে সোচ্চার থাকবেন তিনি।

রোমানা আফরোজ বলেন, সরকার নারীর উন্নয়নে বিভিন্ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করছেন। সেই কর্মকাণ্ড গুলোর সফল বাস্তবায়নের মধ্যদিয়ে নারীর শিক্ষা ছাড়াও ধুনট উপজেলায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মানসম্মত শিক্ষা, নারীর প্রতি সহিংসতা রোধ, নির্যাতিত ও অবহেলিত নারীর কল্যাণে এবং মাদকমুক্ত উপজেলা গঠনে নিজেকে নিয়োজিত রাখবো।


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

মন্ত্রীর আশ্বাসে শিক্ষকদের আন্দোলন স্থগিত

আমি নিজেও শিক্ষকের সন্তান। আমার মা দীর্ঘ ৪০ বছর শিক্ষকতা করেছেন। আমরা জানি, কোন পেশার মানুষ কেমন আছে। যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হয়নি তাদের সমস্যা সম্পর্কেও অবগত আছি।

প্রতিমন্ত্রীর সামনে ইংলিশ বানান পারলেন না শিক্ষিকা

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের এমন অবস্থা দেখ হতাশা প্রকাশ করেন প্রতিমন্ত্রী। তবে চারটি বিদ্যালয়ের শিক্ষ-শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশের জাতির পিতার নাম, প্রধানমন্ত্রীর নামসহ বিভিন্ন সমসাময়িক বিষয়ের সঠিক জবাব দিতে পেরেছে।

ঝিনাইদহে প্রধান শিক্ষকের কাণ্ড!

প্রধান শিক্ষক তাদের দুইজনকে ধরে নিয়ে একটি কক্ষের মধ্যে আটকিয়ে এলোপাতাড়ি কিল, ঘুষি, চড়থাপ্পড় ও মাথার চুল ধরে ওয়ালের সাথে ধাক্কা মারতে থাকে।

মন্তব্য লিখুন...

Top