19/03/2019 , ঢাকা

এমপিওভুক্ত হচ্ছেন ২২৮ শিক্ষক


প্রকাশিত: 19/03/2019 14:36:24| আপডেট:

বেসরকারি কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নতুন করে ২২৮ শিক্ষককে এমপিওভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে এসএসসি (ভোকেশনাল) শাখায় ৪১ এবং এইচএসসি (বিএম) শাখায় ১৮৭ শিক্ষক রয়েছেন। এসব শিক্ষকদের এমপিও বাবদ সরকারি কোষাগার থেকে বাৎসরিক প্রায় সাড়ে ৬ কোটি টাকা ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

কারিগরি শিক্ষা অধিদফতর থেকে জানা গেছে, বেসরকারি কারিগরিতে অনুমোদিত বিভিন্ন শ্রেণি, ট্রেড ও স্পেশালাইজেশনে ২০১১ সালের ১৩ নভেম্বরের পরে নিয়োগপ্রাপ্ত ভোকেশনাল ও বিএম শাখার ২২৮ শিক্ষক ও প্রভাষকদের এমপিওভুক্তিকরণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এসব শিক্ষকদের বাৎসরিক বেতন-ভাতাসহ ৬ কোটি ৩৭ লাখ ২৯ হাজার টাকা ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে।

জানা গেছে, ২০১৮-১৯ অর্থবছর থেকে এসব শিক্ষকদের এমপিও সুবিধা প্রদান করা হবে। পূর্ব সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এ অর্থ ছাড়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের উপসচিব তানিমা তাসনিম স্বাক্ষরিত গত ৩১ অক্টোবর এসব শিক্ষকদের বেতন-ভাতা ও সহায়তা বাবদ অর্থ ছাড়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব জাকির ভূইয়া বলেন, দেশের বিভিন্ন বেসরকারি ভোকেশনাল ও বিএম প্রতিষ্ঠানে ২০১১ সালের পরে নিয়োগ পেলেও এখন তাদের এমপিওভুক্ত করা হয়নি। চলতি অর্থবছর নির্ধারিত বাজেট থেকে তাদের এমপিওভুক্তকরণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, নতুন করে ২২৮ শিক্ষককে এমপিওভুক্তি বাবদ ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে। এ অর্থ ছাড়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। দ্রুত এ অর্থ ছাড় দেয়ার কথা রয়েছে। ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে তাদের এমপিভুক্তির আওতায় আনা হবে।

আরো পড়ুন: যে কারণে প্রধান শিক্ষিকা গোপনে জেএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন চেয়েছিলেন?

স্কুলে ভর্তি পরীক্ষাও শেষ করতে হবে ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে

** নির্ভরযোগ্য খবর জানতে ও পেতে স্টার মেইলের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন: Star Mail/Facebook


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

প্রতিমন্ত্রীর সামনে ইংলিশ বানান পারলেন না শিক্ষিকা

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের এমন অবস্থা দেখ হতাশা প্রকাশ করেন প্রতিমন্ত্রী। তবে চারটি বিদ্যালয়ের শিক্ষ-শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশের জাতির পিতার নাম, প্রধানমন্ত্রীর নামসহ বিভিন্ন সমসাময়িক বিষয়ের সঠিক জবাব দিতে পেরেছে।

ঝিনাইদহে প্রধান শিক্ষকের কাণ্ড!

প্রধান শিক্ষক তাদের দুইজনকে ধরে নিয়ে একটি কক্ষের মধ্যে আটকিয়ে এলোপাতাড়ি কিল, ঘুষি, চড়থাপ্পড় ও মাথার চুল ধরে ওয়ালের সাথে ধাক্কা মারতে থাকে।

উপজেলা নির্বাচনে লড়ছেন স্কুলশিক্ষিকা রোমানা

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী এই তরুণীর প্রিয় পেশা শিক্ষকতা। শিক্ষার আলোয় সমাজ উন্নয়নের কর্মী হিসেবে কাজ করতে ভালবাসেন

মন্তব্য লিখুন...

Top