20/08/2019 , ঢাকা

ঝিনাইদহে তিন চাঁদাবাজকে পেটালেন সেনাবাহিনীর সদস্যরা


প্রকাশিত: 20/08/2019 12:36:48| আপডেট:

মহাসড়কে বিভিন্ন পরিবহন থেকে জোরপূর্বক চাঁদা নেয়ার সময় ফরিদ উদ্দিন, শরিফুল ও কবির হোসেন নামে তিন চাঁদাবাজকে ধরে বেধড়ক পিটুনি দিয়েছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা। মঙ্গলবার দুপুরে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ শহরের টিঅ্যান্ডটি অফিসের সামনে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে। পরে চাঁদাবাজরা আর চাঁদাবাজি করবে না বলে মুচলেকা দিয়ে হাত-পা ধরে মাফ চেয়ে এ যাত্রায় রক্ষা পায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে শহরের মেইন বাসস্ট্যান্ড থেকে দুইশ গজ দূরে টিঅ্যান্ডটি অফিসের সামনে ৪-৫ জনের একটি দল মহাসড়কে বাস-ট্রাকসহ বিভিন্ন পরিবহন থামিয়ে চাঁদা তুলছিল। এতে মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। এসময় সেনাবাহিনীর একটি গাড়ি এসে ওই যানজটে পড়ে। পরে সেনা সদস্যরা গাড়ি থেকে নেমে এগিয়ে গিয়ে ৪-৫ যুবককে লাঠি হাতে বিভিন্ন পরিবহন থেকে জোরপূর্বক চাঁদা আদায় করতে দেখে। পরে ধাওয়া করে তাদের তিনজনকে ধরে বেধড়ক পিটুনি দেয় তারা। এক পর্যায়ে হাতে-পায়ে ধরে আর চাঁদাবাজি করবে না বলে মাফ চেয়ে এ যাত্রায় রক্ষা পায় চাঁদাবাজরা।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইউনুচ আলী জানান, মহাসড়কে চাঁদা তোলা নিয়ে কোনো মারপিটের ঘটনা তার জানা নেই।

প্রসঙ্গত, বছরের পর বছর ধরে একটি বিশেষ মহলের নির্দেশে ওই চাঁদাবাজরা মহাসড়কে বিভিন্ন যানবাহন থেকে চাঁদা তুলে আসছে। ঈদের ফিতরের আগে থেকে প্রশাসনের নির্দেশে মহাসড়কে সকল ধরনের চাঁদাবাজি বন্ধ ঘোষণা করায় অল্প কয়েক দিনের জন্য চাঁদাবাজি বন্ধ ছিল। কিন্তু প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে চলতি সপ্তাহ থেকে আবারও মহাসড়কে চাঁদাবাজি শুরু হয়।


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

চিকিৎসা করিয়ে আর ফেরা হলো না ঝিনাইদহের মইনুলের

গ্রামীণফোনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা সোহাগ ঝিনাইদহ পৌর এলাকার

ঝিনাইদহে নববধূকে গলা কেটে হত্যা

এখলাস আলীর সঙ্গে মিমের প্রেম ছিল। প্রায় তিন মাস আগে এখলাস তার পরিবারের অমতে মিমকে

ঝিনাইদহ জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতিসহ আটক ২

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রানা হামিদ স্টার মেইলকে বলেন, 'জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি খালিদুর রহমান খালিদকে

মন্তব্য লিখুন...

Top