17/01/2019 , ঢাকা

ঝিনাইদহে ব্যায়াম করতে গিয়ে কলেজছাত্রের মৃত্যু


প্রকাশিত: 17/01/2019 07:25:30| আপডেট:

ঝিনাইদহ শহরের চাকলাপাড়ায় বাড়ির গেটের কংক্রিটের স্লাপ ভেঙ্গে মাথায় পড়ে চয়ন বিশ্বাস (১৯) নামে এক কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি ওই এলাকার রমানাথ বিশ্বাসের ছেলে। চয়ন এবার এইচএসসি পাস করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিচ্ছিল।

ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি এমদাদুল হক শেখ জানান, শুক্রবার সকালে চয়ন বিশ্বাস বাড়ির গেটের কংক্রিটের স্লাবের সঙ্গে রিং ঝুলিয়ে ব্যায়াম করছিলেন। এ সময় গেটের কংক্রিটের স্লাবটি ভেঙ্গে তার মাথায় পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

ঝিনাইদহের গীতা দাসের চিকিৎসা বন্ধ টাকার অভাবে

‘মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য, একটু সহানুভূতি কি মানুষ পেতে পারে না ও বন্ধু…’, ভূপেন হাজারিকা জীবনমুখী গানের অংশ এটি। মানুষের বিপদের সময় পাশে থেকে সহযোগিতা করাই মানুষের ধর্ম হওয়া উচিত, একটু সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে।

চিকিৎসার অভাবে ঝিনাইদহ ক্যাডেট কলেজ পার্শ্ববর্তী ঝিনুকমালা আবাসন প্রকল্পে বসবাস করা গীতা দাস (৩৮) অর্থ ও সহানুভূতির জন্য তিন বছর ধরে দিনের পর দিন চোখের জল গড়িয়েছেন।

গীতা দাস জানান, ঠিকমতো হাঁটতে পারি না। হাঁটলেই ব্যথা করে। কোনো কাজ করতে পারি না। আমার ভাঙ্গা ডান পায়ে যে অপারেশন করে স্টিলের পাত ও স্ক্রু লাগানো। ডাক্তার বলেছিলেন, এক বছর পর পা থেকে এগুলো বের করতে হবে। কিন্তু ভাগ্যের কি পরিহাস তিন বছর হয়ে গেল টাকার অভাবে পা থেকে এ স্টিলের পাত ও স্ক্রু আর খুলতে পারছি না। এগুলো খুলতে আবারো পায়ে অস্ত্র প্রচার করতে হবে। এতে প্রযোজন ৬০ হাজার টাকা।

রিক্সা চালক স্বামী বিপুল দাসের (৪৫) পক্ষে এত টাকা যোগাড় করা সম্ভব না। যা আয় হয়, তা দিয়ে সংসার চলে কোনোমতে।

নিজের দুরাবস্থার কথা তুলে ধরে গীতা দাস বলেন, তিন বছর আগে দুর্ঘটনায় আমার ডান পা ভেঙে যায়। তখন সদর হাসপাতালে গেলে তারা ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে পাঠান। ডাক্তার বলেন, পায়ে অপারেশন করতে হবে। এতে খরচ হবে ৬০ হাজার টাকা। টাকার অভাবে ঢাকা থেকে ফিরে আসি। পরে ঝিনাইদহের একটি ক্লিনিকে (অর্থো-সার্জারী) ডা. নাজমুল হুদাকে দেখালে তিনিও অপারেশনের কথা বলেন। তখন গরু-ছাগল বিক্রি করে ও মানুষের আর্থিক সাহায্যে আমার ডান পায়ে অপারেশন করা হয়।

অপারেশনে পায়ে স্টিলের রড ও স্ক্রু লাগানো হয়। ডাক্তার বলেন, এক বছর পর এগুলো পা থেকে খুলতে হবে। কিন্তু তিন বছরেও পা থেকে এগুলো খুলতে পারিনি ৬০ হাজার টাকার জন্য। বর্তমানে আমার পা ফুলে যাচ্ছে প্রচণ্ড যন্ত্রনা হয়। রাতে ঘুমাতেও পারি না যন্ত্রণাতে।

সমাজের বিত্তবানদের কাছে সাহায্য কামনা করেছেন গীতা রানী। আর্থিক সহযোগিতা পাঠাতে যোগাযোগ: ০১৯৯৪-৫৫৪৩০৪ ((গীতা দাস)।

আরো পড়ুন: ঝিনাইদহের ঐতিহ্যবাহী ছবিঘর সিনেমা হল বন্ধ হচ্ছে

** নির্ভরযোগ্য খবর জানতে ও পেতে স্টার মেইলের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন: Star Mail/Facebook

 


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

সংরক্ষিত আসনে এমপি হচ্ছেন ঝিনাইদহের মনিকা আলম

একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত মহিলা আসনে জাতীয় পার্টি থেকে সংসদ সদস্য হচ্ছেন ঝিনাইদহের মনিকা আলম।

ঝিনাইদহে স্ত্রীর ওপর অভিমান করে স্বামীর আত্মহত্যা

জানা গেছে, মঙ্গলবার ঝিনাইদহ আদালতে একটি মারামারি মামলায় জামিন নিয়ে সাগর শ্বশুরবাড়ি একই উপজেলার তৈলকুপ গ্রামে যান।

২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে কালীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

গত ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে পৃথক তিনটি সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত হয়েছেন।

মন্তব্য লিখুন...

Top