27/05/2019 , ঢাকা

‘দিদি’ ডাকায় ব্যবসায়ীর মাছের ঝুড়িতে লাথি মারলেন এসিল্যান্ড


প্রকাশিত: 27/05/2019 19:47:21| আপডেট:

সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার পূর্ব বাজার ডাকবাংলোর সামনে লাথি দিয়ে ব্যবসায়ীর মাছের ঝুড়ি ড্রেনে ফেলে দিয়েছেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) সঞ্চিতা কর্মকার। রবিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে এবং সোমবার বিষয়টি উপজেলা আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক বৈঠকে উপস্থাপন করা হয়।

বুধবার ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার ওসি আবুল বাশার মো. বদিউজ্জামান বলেন, ‘কমিটির একজন সদস্য হিসেবে আমি বৈঠকে উপস্থিত ছিলাম। এই ঘটনা প্রসঙ্গে অভিযোগ তুলেছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান, শুনেছি।’ তবে এ বিষয়ে আর কোনও কথা বলতে রাজি হননি তিনি।

ভুক্তভোগী মাছ ব্যবসায়ী লায়েক আহমেদ বলেন, “উপজেলার পূর্ববাজার ডাকবাংলোর সামনে বাজার বসানোর নিয়ম না থাকলেও ব্যবসায়ীরা আগে থেকেই সকালে ওখানে মাছ বিক্রি করে আসছিলেন। রবিবার সকাল ১০টার দিকে এসিল্যান্ড ডাকবাংলোর সামনে বসানো মাছের বাজার সরাতে বলেন। সে সময় তাকে বলি—‘সরাচ্ছি দিদি।’ এরপরই তিনি ক্ষেপে যান। তিনি বলেন, ‘দিদি বললি কেন।’ এরপর ইংরেজিতে গালি দেন এবং মাছের ঝুড়িতে লাথি দেন। ঝুড়িটি তখন পাশের ড্রেনে পড়ে যায়। এ ঘটনায় অন্য মাছ ব্যবসায়ী সবাই ক্ষুব্ধ হন। পরের দিন ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে উপজেলার আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক বৈঠকে অভিযোগ করেন হাছান মিয়া। ১ নম্বর ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ বদরুদোজ্জাও এ ব্যাপারটি উপস্থাপন করেছেন।’’

এ বিষয়ে স্থানীয় মাছ ব্যবসায়ী হাছান মিয়া জানান, ‘তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আইনশৃঙ্খলা কমিটির বৈঠক থেকে জানানো হয়েছে। এই ঘটনার জন্য কোনও ব্যবস্থা নেওয়া না হলে শুক্রবার দুপুর ২টায় সদর বাজারের সামনে মানববন্ধন করবেন মাছ ব্যবসায়ীরা।’

এই ঘটনার পর এসিল্যান্ড সঞ্চিতা কর্মকার স্থানীয় সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘ঘটনাটি ঠিক হয়নি। আমি এ বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করবো।’ তবে এরপর তিনি আর কারও সঙ্গে যোগাযোগ করেননি বলেও সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছে। এ বিষয়ে জানার জন্য বুধবার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সঞ্চিতা কর্মকারের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ফেঞ্চুগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আয়েশা হক বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা সভায় ১ নম্বর ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ বদরুদোজ্জা মৎস্য ব্যবসায়ীকে লাঞ্ছিত করা হয়েছে বলে অভিযোগ করলে এসিল্যান্ড এ বিষয়ে সঙ্গে সঙ্গে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এছাড়া এসব বিষয়ে কেউই আমার কাছে কোনও অভিযোগ করেননি। যদি কেউ অভিযোগ করতেন, তাহলে আমি যাচাই-বাছাই করে ব্যবস্থা নিতাম।’


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

ঝিনাইদহে আত্মীয় হিসেবে বাসায় এসে শিশু অপহরণ

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কনক কুমার দাস জানান, থানায় জিডি হয়েছে। হয়তো ভয়ে পরিবারের লোকজন মামলা করেনি। তবুও তাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমরা মোবাইল ট্রাকিংয়ের মাধ্যমে অপহরণকারীদের অবস্থান শনাক্ত করেছি।

পরকীয়ার ছবি ফেসবুকে, ছেলেকে নিয়ে খালে ঝাঁপ গৃহবধূর

প্রেমিকের সঙ্গে গৃহবধূর ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফাঁস হওয়ার পর মুহূর্তেই সেটা ভাইরাল হয়ে যায়। এরপর সংসারে কলহ শুরু

উপজাতি বলে বারবার অপমান করায় আত্মঘাতী চিকিৎসক

তার মায়ের দাবি, সিনিয়র চিকিৎসকেরা প্রায়ই পায়েলকে জাতি বিদ্বেষ মূলক মন্তব্য করতেন। আর সেই কারণেই আত্মহত্যা করেছেন পায়েল। মৃত্যুর আগে কয়েক জনের নামও বলে গিয়েছিলেন তিনি।

মন্তব্য লিখুন...

Top