25/05/2019 , ঢাকা

নির্বাচন চাইলে সংঘাত বন্ধ করুন: কাদের


প্রকাশিত: 25/05/2019 13:51:59| আপডেট:

নয়াপল্টনে পুলিশের সাথে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষকে ‌টেস্ট কেস হিসেবে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বিএনপির উদ্দেশে বলেছেন, নির্বাচন চাইলে সংঘাত বন্ধ করুন। সুষ্ঠু নির্বাচন করতে বিএনপিকে অবশ্যই সংঘাতের পথ পরিহার করতে হবে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নির্বাচনের জন্য নয়, বরং নির্বাচন বানচালের জন্য ষড়যন্ত্র করছে। দীর্ঘদিন ধরে তারা নির্বাচন বানচালের জন্য ব্লু-প্রিন্ট করে আসছিল।‌‌

বৃহস্পতিবার (১৫ নভেম্বর) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, বুধবার (১৪ নভেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের নেতৃত্বে একটি মিছিল কার্যালয়ের সামনে আসে। এ সময় বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী আরও কয়েকটি মিছিল দলীয় কার্যালয়ের সামনে এসে জড়ো হয়। তখন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

মোহাম্মদপুরের সংঘর্ষের ঘটনায় ২জন মারা গেলেও সে ঘটনায় পুলিশ ও নির্বাচন কমিশন কোনো ভূমিকা নেয়নি এমন প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, নয়াপল্টনের সংঘর্ষের ঘটনা আর মোহাম্মাদপুরের ঘটনা এক নয়। ওই ঘটনা আমরা তদন্ত করছি। এ নিয়ে প্রশ্ন করা অবান্তর।

একপর্যায়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে উপস্থিত পুলিশ সদস্যরা বিএনপি নেতাকর্মীদের ফুটপাতের দিকে অবস্থান নেওয়ার জন্য রাস্তা ছেড়ে দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন এবং তাদের ফুটপাতের দিকে চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় পুলিশের পক্ষ থেকে দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়া হয়। তখন উপস্থিত নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়ে ওঠেন এবং পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষ চলাকালে পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে এবং রাবার বুলেট ছোড়ে। তখন বিএনপির নেতাকর্মীরা পুলিশকে উদ্দেশ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে।


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

রাহুল ও প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে সোনিয়া গান্ধীর জরুরি বৈঠক

লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেস ও জোট (ইউপিএ) মাত্র ৯৩টি আসন পেয়ে রাজনৈতিক যে বিপর্যয়ের মুখোমুখি, তা কাটিয়ে উঠতে রাহুল ও প্রিয়াঙ্কার

চিত্রনায়ক দেবের দাপুটে জয়

ভারতজুড়ে নরেন্দ্র মোদির বিজেপির জয়জয়কার। আর এরমধ্যে বিজেপি প্রার্থীকে পরাজিত করে বিপুল ভোটে জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী ও অভিনেতা দীপন অধিকারী দেব।

৯ শতাংশ সুদে ঋণ না দিলে সরকারি আমানত পাবে না ব্যাংক

যেসব ব্যাংক গ্রাহকদের ৯ শতাংশ সুদে ঋণ দেবে না, এমনকি যারা ইতোমধ্যে ৯ শতাংশে ঋণের সুদহার নামিয়ে আনতে ব্যর্থ হয়েছে, সেসব ব্যাংক আমানত হিসেবে সরকারি তহবিলের অর্থ পাবে না।

মন্তব্য লিখুন...

Top