26/06/2019 , ঢাকা

নুসরাতের জানাজা পড়ালেন বাবা, অংশ নিলেন হাজারো মানুষ


প্রকাশিত: 26/06/2019 08:39:00| আপডেট:

ফেনীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির মরদেহ বৃহস্পতিবার বিকেলে তার গ্রামের বাড়ি সোনাগাজী উপজেলার উত্তর চরচান্দিয়ায় এসে পৌঁছায়। এ সময় এলাকার হাজার হাজার মানুষের আর্তনাদে আকাশ ভারি হয়ে ওঠে। স্বজনসহ এলাকাবাসী নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনা কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না। তারা এই বর্বরোচিত ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন।

নুসরাতের লাশ স্বজনদের দেখানো শেষে জনতার ভিড় ঠেলে ধীরে ধীরে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি নির্ধারিত জানাজার স্থান সোনাগাজীর মো. সাবের পাইলট হাইস্কুল মাঠে প্রবেশ করে। জানাজায় ইমামতি করেন নুসরাতের বাবা মাওলানা এস এম মুসা। জানাজায় অংশগ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক প্রটোকল অফিসার আলাউদ্দিন নাসিম, ফেনীর জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজ্জামান, পুলিশ সুপার এস এম জাহাঙ্গীর আলম সরকার প্রমুখ। জানাজা শেষে খাদিজাতুল কোবরা মহিলা মাদ্রাসার কবরস্থানে দাদির কবরের পাশে নুসরাতকে দাফন করা হয়।

এদিকে নুসরাতকে হত্যার ঘটনায় মামলাটি সোনাগাজী থানার কাছ থেকে পিবিআইতে হস্তান্তর করা হয়েছে। সোনাগাজী থানার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক (তদন্ত) মামলার নথিটি বৃহস্পতিবার সকালে পিবিআইয়ের কাছে হস্তান্তর করেন।

নুসরাতের মামলার আসামিদের আইন সহায়তা দেওয়ায় ফেনী সদর উপজেলার কাজিরবাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী বুলবুল সোহাগকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

জুবায়ের ও পপি রিমান্ডে: নুসরাত হত্যা মামলায় জুবায়ের ও পপিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শরাফ উদ্দিন বৃহস্পতবিার পাঁচদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। এ নিয়ে এই মামলায় নয়জনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

ফেনীতে শোক: নুসরাতের মৃত্যুর ঘটনায় সোনাগাজীর সর্বস্তরের মানুষ কালোব্যাজ ধারণ করে শোক প্রকাশ করছে।

এদিকে জেলা প্রশাসন থেকে গঠিত তদন্ত কমিটির তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দেওয়ার কথা থাকলেও কমিটির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পাঁচ কার্যদিবস সময় বাড়ানো হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক পি কে এম এনামুল করিম এই তথ্য জানিয়েছেন।

সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার নারী কেলেঙ্কারী, ছাত্রীদের শ্লীলতাহানির চেষ্টা, অর্থ আত্মসাৎসহ বিভিন্ন অপকর্ম বছরের পর বছর চালিয়ে এলেও তার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় সচেতন মহলসহ এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে মাদ্রাসাটির পরিচালনা কমিটির সভাপতি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক পি কে এম এনামুল করিম বলেন, ‘আমার আমলে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ আসেনি। তবে এডিএম আক্তারুন নেছা শিউলি মাদ্রাসাটির দায়িত্বে থাকা অবস্থায় একটি মেয়ে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহনির অভিযোগ দিয়েছিল। পরে মেয়েটির বাবাকে ডাকা হলে তারা ঘটনা অস্বীকার করেছেন। অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এলে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ প্রমাণ করতে পারেনি।

প্রসঙ্গত, নুসরাত জাহান রাফি সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার আলিমের পরীক্ষার্থী ছিল। ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলার বিরুদ্ধে এর আগেও ওই ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ ওঠে। নুসরাতের মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে ২৭ মার্চ সোনাগাজী থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর অধ্যক্ষকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মামলা তুলে নিতে বিভিন্নভাবে নুসরাতের পরিবারকে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। ৬ এপ্রিল সকাল ৯টার দিকে আলিম পর্যায়ের আরবি প্রথম পত্র পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে যান নুসরাত। এসময় তাকে কৌশলে একটি বহুতল ভবনে ডেকে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। সেখানে তার গায়ে দাহ্য পদার্থ দিয়ে আগুন দেওয়া হয়। বুধবার রাত সাড়ে ৯টায় ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নুসরাত মারা যান।

নুসরাতের গায়ে আগুন দেওয়ার ঘটনার পর ৮ এপ্রিল নুসরাতের বড়ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে সোনাগাজী থানায় একটি মামলা (নম্বর ১০) দায়ের করেন।

আসামিদের মধ্যে পলাতক রয়েছে— সোনাগাজীর পৌর কাউন্সিলর মুকছুদ আলম, অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলার অন্যতম সহযোগী নূরউদ্দিন, ওই মাদ্রাসার ছাত্র সোনাগাজী পৌরসভার উত্তর চরচান্দিয়া গ্রামের বাসিন্দা শাহাদাত হোসেন শামীম, জাবেদ হাসান ও আব্দুল কাদের।


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

ঝিনাইদহে স্ত্রীর সাথে যৌন মিলনের ছবি ফেসবুকে দিলেন পুলিশ সদস্য

বিষয়টি নিয়ে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান বলেন, আমি শুনেছি শোভন কর্মস্থলে গরহাজির থাকে। তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

ঝিনাইদহে মাদক মামলায় ব্যবসায়ীর যাবজ্জীবন

মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। বিচারক দীর্ঘ শুনানি শেষে আসামি আনিছুর রহমানকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড

ঝিনাইদহে সাবেক স্বামীর ছুরিকাঘাতে নারী জখম

আয়াতুল্লাহ বেহেস্তী তার সহকর্মী জান্নাতুল নাহারের সাথে অফিসে দেখা করতে আসে। এক পর্যায়ে তারা অফিসের বাইরে বারান্দায় গেলে জান্নাতুলকে ধারালো কিছু দিয়ে মুখে, পিঠে আঘাত করে।

মন্তব্য লিখুন...

Top