26/03/2019 , ঢাকা

প্রতিমন্ত্রীর সামনে ইংলিশ বানান পারলেন না শিক্ষিকা


প্রকাশিত: 26/03/2019 16:29:22| আপডেট:

হঠাৎ করে কুড়িগ্রামের কয়েকটি বিদ্যালয়ে পরিদর্শনে যান প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। শনিবার উলিপুর উপজেলার চরসুখেরবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পরিদর্শনে গেলে পায়নি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে। এ নিয়ে ক্ষেভ প্রকাশ করেন তিনি।

এর পাশাপাশি কড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার চরগেন্দার আলগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন তিনি। সেখানে শিক্ষার্থীদের ইংরেজিতে ‘ইংলিশ’ শব্দটির বানান জিজ্ঞেস করলে সঠিকভাবে উত্তর দিতে পারেনি কেউ। এমনকি বিদ্যালয়োর সহকারী শিক্ষক শাহনাজও পারিনি।

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের এমন অবস্থা দেখ হতাশা প্রকাশ করেন প্রতিমন্ত্রী। তবে চারটি বিদ্যালয়ের শিক্ষ-শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশের জাতির পিতার নাম, প্রধানমন্ত্রীর নামসহ বিভিন্ন সমসাময়িক বিষয়ের সঠিক জবাব দিতে পেরেছে।

এদিকে, কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো পরিদর্শনকালে ইংরেজির এমন করুণ দশা দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেন গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী।

রৌমারীর চরগেন্দার আলগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘুঘুমারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং উলিপুর উপজেলার সোনাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং চর সুখেরবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন প্রতিমন্ত্রী।

সকালে রৌমারী উপজেলার চরগেন্দার আলগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের কাছে ইংরেজিতে ‘ইংলিশ’ শব্দটির বানান করে বলতে বলেন প্রতিমন্ত্রী। কিন্তু স্কুলটির প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণির কোনো শিক্ষার্থী তা পারেননি। এ সময় বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শাহনাজকে ইংরেজিতে ‘ইংলিশ’ শব্দটি বানান করে বলতে বলে প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। কিন্তু শিক্ষক শাহনাজও ব্যর্থ হন। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের এমন করুণ অবস্থা দেখে হতাশা প্রকাশ করেছেন প্রতিমন্ত্রী। পরে তিনি ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

মন্ত্রীর আশ্বাসে শিক্ষকদের আন্দোলন স্থগিত

আমি নিজেও শিক্ষকের সন্তান। আমার মা দীর্ঘ ৪০ বছর শিক্ষকতা করেছেন। আমরা জানি, কোন পেশার মানুষ কেমন আছে। যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হয়নি তাদের সমস্যা সম্পর্কেও অবগত আছি।

ঝিনাইদহে প্রধান শিক্ষকের কাণ্ড!

প্রধান শিক্ষক তাদের দুইজনকে ধরে নিয়ে একটি কক্ষের মধ্যে আটকিয়ে এলোপাতাড়ি কিল, ঘুষি, চড়থাপ্পড় ও মাথার চুল ধরে ওয়ালের সাথে ধাক্কা মারতে থাকে।

উপজেলা নির্বাচনে লড়ছেন স্কুলশিক্ষিকা রোমানা

মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী এই তরুণীর প্রিয় পেশা শিক্ষকতা। শিক্ষার আলোয় সমাজ উন্নয়নের কর্মী হিসেবে কাজ করতে ভালবাসেন

মন্তব্য লিখুন...

Top