13/11/2018 , ঢাকা

ফেসবুক ব্যবহার কমিয়ে ফর্মে ফিরলেন সৌম্য


প্রকাশিত:10:20 pm | October 27, 2018 | আপডেট:

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে ৯২ বলে ৯টি চার এবং ৬টি ছয়ে ১১৭ রানের একটি অনবদ্য ইনিংস খেলেছেন সৌম্য সরকার। নিজের সহজাত সব শটে রীতিমত শাসন করেছেন জিম্বাবুয়ের বোলারদের। ম্যাচ শেষে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলছিলেন সৌম্য। তিনি জানালেন কিভাবে তিনি ফর্মে ফেরার জন্য অপরিসীম চাপ সামাল দিয়েছেন।

সৌম্য জানান সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিভিন্ন বিরূপ মন্তব্য তার উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলেছে। এই প্রভাব থেকে মুক্ত হবার জন্য তিনি বন্ধুদের সাথে বেশি করে সময় কাটাতে শুরু করেন। যার ফল চলমান জাতীয় ক্রিকেট লীগে ব্যাট ও বল হাতে সৌম্যের অসাধারণ ফর্ম।

সৌম্যের ভাষায়, আমার কাছে মনে হয় আমি বাইরের কথা বেশি শুনতাম। ফেসবুকটা যখন ব্যবহার করতাম, তখন নেতিবাচক মন্তব্য গুলো আসতো অনেক, যা মাথায় গেঁথে যেত। মানুষ ইতিবাচক জিনিসটা লিখেও না, নিতেও পারে না। এমন এক একটা হেডলাইন আসত, যেন আমি সবই খারাপ করেছি। আর আমরা বাংলাদেশিরা হেডলাইনটাই বেশি পড়ি। পরে ফেসবুক ব্যবহার বন্ধ করব ভেবেছি, নেতিবাচক জিনিস গুলো কম নিব, মানুষের সাথে কথা কম বলব। শুধু ইতিবাচক জিনিস নিয়েই বেশি ভাবার চেষ্টা করেছি। অনুশীলনও কম করতাম তখন, যখন খারাপ যায় তখন সবই খারাপ যায়, ভাল করলেও খারাপ হয়। একটু বন্ধুদের সাথে বেশি সময় কাটাতাম সেই সময়ে।

এই ইনিংসটা সৌম্যের জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কারণ বিগত অনেকগুলো সিরিজেই তিনি তার সহজাত খেলাটা খেলতে পারছিলেন না। ফর্ম না থাকায় বাদ পড়েন দল থেকে। এমনকি জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচে সেঞ্চুরি করার পরও সিরিজের শুরুতে দলে ডাক পাননি তিনি। তাই শেষ ম্যাচে দলে ডাক পেলেও তার উপর পাহাড়সম চাপ ছিল। তবে চাপ নিয়ে চিন্তা না করে নিজের খেলাটাকে উপভোগ করতে চেয়েছেন সৌম্য।

সৌম্য বলেন, কটা ম্যাচে সুযোগ পেয়েছি, এখানেই অনেক কিছু ছিল হারানোর। যদি খারাপ খেলতাম হয়তো নেতিবাচক অনেক কথা হত। একটা ম্যাচ কেন নিয়ে আসা হলো, কেন খারাপ খেলল, এই ধরনের কথা হতে পারত। শুরুতে এইসব মাথায় ছিল, পরে ভাবলাম কথা তো হবেই। নিজের খেলাটাই খেলি।

তবে, এই সেঞ্চুরিটা তার ক্যারিয়ারের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ন হলেও পাকিস্তানের বিপক্ষে সেঞ্চুরিকেই এগিয়ে রাখছেন সৌম্য। তিনি বলেন, অবশ্যই পাকিস্তানের সেঞ্চুরি এগিয়ে রাখব, কারণ ওটা আমার প্রথম সেঞ্চুরি। আর সেঞ্চুরি তো সবসময় বিশেষ কিছু, এটাও ভাল ছিল।”


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

‘ডাক্তার’ নাম দিয়ে ফেসবুকে প্রতারণা

‘ডাক্তার’ নাম দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে। চিকিৎসকরা বোলছেন, ডাক্তার নাম দিয়ে

জীবিত শিক্ষামন্ত্রীকে ‘মৃত’ দেখাচ্ছে ফেসবুক!

কোনো ব্যক্তি মারা যাওয়ার পর তার ফেসবুক বন্ধুদের আবেদনের প্রেক্ষিতে তথ্য যাচাই-বাছাইয়ের পর তার অ্যাকাউন্ট রিমেম্বারিং করার

বিশ্বজুড়েই ডাউন ছিল ফেসবুক

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে স্থবির হয়ে পড়েছে ফেসবুক কার্যক্রম। বাংলদেশেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির এ অবস্থা দেখা গেছে। বাংলাদেশে