20/08/2019 , ঢাকা

বাকবিতণ্ডার পর পিছু হটে শোভন-রাব্বানী


প্রকাশিত: 20/08/2019 12:25:10| আপডেট:

পদ বঞ্চিতদের তোপের মুখে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে ফেরত আসলো কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণার পর মধুর ক্যান্টিনে মারধরে আহতদের দেখতে যাওয়ার পর মেডিকেলের জরুরি বিভাগের গেটে এ ঘটনা ঘটে।

কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী রাত পৌনে এগারোটার দিকে মেডিকেলের জরুরি বিভাগে আহতদের দেখতে গেলে সেখানে আহতদের সঙ্গে থাকা শতাধিক নেতাকর্মীরা বাধা দেয়। প্রায় আধঘণ্টা বাকবিতণ্ডার পর পিছু হটে শোভন-রাব্বানী।

এসময় উভয়পক্ষের নেতাকর্মীরা পাল্টা পাল্টি স্লোগান দিতে থাকে। ‘মানবতার কথা বলে বোনদের উপর হামলা কেন’, ‘বিচার চাই, বিচার চাই’, ‘বিবাহিতরা কমিটিতে কেন’, ‘মানি না মানবো না’, ‘রাজাকার পুত্র কমিটিতে কেন’, ‘সন্ত্রাসীদের কালো হাত, ভেঙ্গে দাও গুড়িয়ে দাও’, ‘ভুয়া, ভুয়া’ বলে পদ বঞ্চিতরা স্লোগান দেয়।

অপরদিকে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পক্ষের কর্মীরা ‘বিদ্রোহীদের কালো হাত ভেঙ্গে দাও গুড়িয়ে দাও’ বলে পাল্টা স্লোগান দেয়।

শোভন ও রাব্বানী মেডিকেলের গেটে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাদের পথরুদ্ধ করে রোকেয়া হলের সভাপতি ডাকসুর ক্যাফেটেরিয়া সম্পাদক বিএম লিপি। এসময় সভাপতি সাধারণ সম্পাদককে উদ্দেশ্য করে লিপি বলেন, রাজাকার পুত্র, বিবাহিত, অছাত্রদের কমিটিতে রেখেছেন, আমাদের মত ত্যাগীদের কেন মূল্যায়ন করেননি? এসময় রাব্বানী বলেন, সামনে মুল্যায়ন করা হবে।

একই সময় আল আমিন বলেন, যাদের কমিটিতে রেখেছেন তারা কোন বিবেচনায় আমাদের চেয়ে যোগ্য? উত্তরে শোভন বলেন, সবকিছু বিবেচনা করা হবে। আমরা আহতদের দেখতে আসছি।

এসময় সাবেক কমিটির প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সাইফুদ্দিন বাবু বলেন, ত্যাগী নেতাদের মারধর করে, কোন সিম্পেথি নেওয়ার জন্য এসেছেন? কোন ভাবেই এই নাটক করতে দেওয়া হবে না।

পরে সভাপতি সাধারণ সম্পাদক হাসপাতালে না প্রবেশ করে চলে যান।

উল্লেখ্য, সম্মেলনের এক বছর পর গঠন করা হয়েছে ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি। এই কমিটির সমালোচনা করতে গিয়ে মারধরের শিকার হয়েছেন বঞ্চিতরা। সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) মধুর ক্যান্টিনে এই হামলায় নারীকর্মীসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন।

সন্ধ্যায় ঢাবির মধুর ক্যান্টিনে ‘যোগ্যদের বঞ্চিত করে বিবাহিত, বিতর্কিত, অছাত্র ও অযোগ্যদের দিয়ে গঠিত কমিটি’ বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন ডাকেন পদ না পাওয়া নেতাকর্মীরা।

জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলনে আসেন প্রায় অর্ধশত নেতাকর্মী। সংবাদ সম্মেলন শুরুর আগ মুহূর্তে সেখানে হামলা চালিয়ে সংবাদ সম্মেলন পণ্ড করে দেয় আগে থেকেই সেখানে অবস্থান নেওয়া পদপ্রাপ্ত শতাধিক নেতা। এই হামলায় তারা সংবাদ সম্মেলনের ব্যানার ছিঁড়ে নিয়ে যায় এবং মারধর করে। হামলায় নারীকর্মীসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে কয়েকজন অনেক বেশি রক্তাক্ত হয়েছেন।

আহতদের মধ্যে রয়েছেন- বর্তমান কমিটির সংস্কৃতি বিষয়ক উপ সম্পাদক ও ডাকসুর সদস্য তিলোত্তমা শিকদার, ডাকসুর ক্রীড়া সম্পাদক ও ছাত্রলীগের সাবেক কমিটির উপ বিজ্ঞান সম্পাদক তানভীর আহমেদ, রোকেয়া হলের সাধারণ সম্পাদক শ্রাবনী দিশা, রোকেয়া হলের সভাপতি ও ডাকসুর কমন রুম ও ক্যাফেটেরিয়া সম্পাদক বিএম লিপি (নতুন কমিটিতে উপ সাংস্কৃতিক সম্পাদক), শামসুন্নাহার হলের সাধারণ সম্পাদক ইয়াসমিন শান্তা, শামসুন্নাহার হলের সভাপতি ও ডাকসু সদস্য নিপু ইসলাম তন্বী (বর্তমান কমিটির উপ সাংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক), কুয়েত মৈত্রী হলের সাধারণ সম্পাদক শ্রাবণী শায়লা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক আইন সম্পাদক সাইফুর রহমান।

নতুন কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরিফুজ্জামান আল ইমরান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামস ই নোমান, সহ সভাপতি সাদিক খানকে হামলার নেতৃত্বে দেখা গেছে বলে পদ বঞ্চিতরা জানান। তবে তাদের কারো কোনো বক্তব্য তাৎক্ষণিকভাবে পাওয়া যায়নি।


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

চিকিৎসা করিয়ে আর ফেরা হলো না ঝিনাইদহের মইনুলের

গ্রামীণফোনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা সোহাগ ঝিনাইদহ পৌর এলাকার

ধুনট ফটোগ্রাফিক সোসাইটির সভাপতি শ্রাবণ সম্পাদক মেহেদী

বগুড়ার ধুনট ফটোগ্রাফিক সোসাইটির বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্মেলনে সংগঠনের এক বছর মেয়াদী নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বৌভাতের আগের রাতে ‘অন্তঃসত্ত্বা প্রেমিকা’ হাজির, শ্রীঘরে প্রেমিক

শুক্রবার একটি অভিজাত হোটেলে বরের অনুপস্থিতিতে বৌভাত অনুষ্ঠিত হয়।

মন্তব্য লিখুন...

Top