18/02/2019 , ঢাকা

মরে স্ত্রীকে ‘মুক্তি’ দিয়ে গেলেন ফিরোজ


প্রকাশিত: 18/02/2019 23:21:31| আপডেট:

স্ত্রী পরকীয়ায় লিপ্ত। ফেরাতে অনেক চেষ্টা করেছেন স্বামী। কিন্তু, কোনো কিছুই তোয়াক্কা না করে প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়ে যান দুই সন্তানের জননী। এই অভিমানে বিষপান করেন রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কেউটিল গ্রামের গোলাপ শেখের ছেলে ফিরোজ শেখ (৪৫)। গতকাল বুধবার বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে।

পরে বৃহস্পতিবার স্ত্রীর প্রেমিক আব্দুর রব শেখকে (৩২) ফিরোজ শেখের আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ। তিনি দুই সন্তানের জনক এবং উপজেলার ছোটভাকলা ইউনিয়নের হাউলি কেউটিল গ্রামের মৃত মোহন শেখের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ২৫ বছর আগে ফিরোজ শেখ পার্শ্ববর্তী হাউলি কেউটিল গ্রামের সাহেব আলীর মেয়ে তাসলিমা বেগমকে (৩৯) বিয়ে করেন। এই দম্পতির প্রাপ্তবয়স্ক এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছেন।

কিছুদিন আগে পার্শ্ববর্তী গ্রামের ইজিবাইকচালক আব্দুর রব শেখের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন তাসলিমা। পারিবারে বিষয়টি জানাজানি হলে তাকে ফেরানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু, ২৫ দিন আগে আব্দুর রবের হাত ধরে পালিয়ে যান তাসলিমা।

স্থানীয়ভাবে সালিস-দরবারের পর আব্দুর রব চাপে পড়ে তাসলিমাকে স্বামীর কাছে ফেরত দেন। কিন্তু, তাদের অভিসার চলতেই থাকে। বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে গত ১ ফেব্রুয়ারি বিকেলে ফিরোজ শেখ বিষপান করেন।

পরিবারের সদস্যরা টের পেয়ে তাকে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। এরপর অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে গতকাল বিকেলে ফিরোজ শেখ মারা যান।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি মো. এজাজ শফী জানান, ফিরোজ শেখের বিষপানের পরই মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে স্ত্রীর প্রেমিক আব্দুর রব শেখকে আটক দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়।

পরে ছেলে বাদী হয়ে আত্মহত্যা প্ররোচনার মামলা করলে, তাতে আব্দুর রবকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে ওসি জানান, তাসলিমা বেগম স্বামীর পরিবারের সঙ্গেই রয়েছেন। মামলায় তাকে আসামি করা হয়নি।


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

সানাই কি চিত্রনায়িকা?

‘কাউকে নায়িকা লিখতে গেলে অন্তত তার একটি চলচ্চিত্র মুক্তি পেতে হবে। সেই ক্ষেত্রে তার বেলায় লেখা যায় তিনি অমুক ছবির নায়িকা।

এমসি কলেজে ছাত্রলীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ

সোমবার ক্যাম্পাসে বসন্ত উৎসব চলাকালে সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে দুই পক্ষ। এসময় কর্তব্যরত সাংবাদিকদের মারধর করে ছাত্রলীগ।

ছাত্রলীগের দুপক্ষে দফায় দফায় সংঘর্ষে রণক্ষেত্র জবি

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে আজ সোমবার দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। এতে পাঁচ সাংবাদিকসহ কমপক্ষে ৪০ জন আহত হয়েছে।

মন্তব্য লিখুন...

Top