15/11/2018 , ঢাকা

রাবি ছাত্রকে জিম্মি করে ছাত্রলীগ নেতার টাকা আদায়


প্রকাশিত:9:50 pm | November 9, 2018 | আপডেট:

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক ছাত্রকে আবাসিক হলে জিম্মি করে ২০ হাজার টাকা আদায় করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের এক নেতা ও এক ছাত্র। বৃস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সোহরাওয়াদী হলে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী ওই ছাত্রের নাম ওমর ফারুক। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্সী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র এবং বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহসম্পাদক শাফিউর রহমান শাফিসহ ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ছাত্র বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন মেহেরচন্ডী এলাকার বাসিন্দা নাঈম ওই টাকা নেন বলে ভুক্তভোগীর দাবি।

ওমর ফারুক জানান, বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সোহরাওয়াদী হলে তিন ঘণ্টা আটক করে তার পরিবারের কাছ থেকে ২০ টাকা আদায় করা হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সহায়তায় ওই দুজনকে চিহ্নিত করা হয় এবং তাকে টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়।

ওমর ফারুক বলেন, ‘গত দুদিন থেকে নাঈম ভাই আমাকে এক বড় ভাইয়ের সঙ্গে দেখা করার কথা বলছিল। তার সঙ্গে গেলে তিনি আমাকে সোহরাওয়ার্দী হলের ১৯১ নম্বর কক্ষে শাফির কাছে নিয়ে যায়। এ সময় তারা আমার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ঢুকে আমি শিবির করি বলে দাবি করে।’

ওই ছাত্র আরো বলেন, ‘শিবিরের বিষয়টি আমি অস্বীকার করলে তারা চর-থাপ্পড় ও লোহার পাইপ দিয়ে মারতে থাকে। ৫০ হাজার টাকা দিলে তারা সিনিয়র নেতাদের কিছু জানাবে না বলে জানায়। পরে তারা আমার পরিবারের কাছে ফোন করে টাকা চাইলে আমার বড় ভাই বিকাশের মাধ্যমে বিশ হাজার টাকা দিতে রাজি হন। টাকা পেয়ে তারা আমাকে ছেড়ে দেন এবং বিষয়টি কাউকে জানালে আমাকে দেখে নেবে বলে হুমকিও দেন।’

ওমর ফারুক বলেন, ‘পরে আমি বিষয়টি আমার জেলা সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমানকে জানাই। ঘটনাটি জানতে পেরে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ও সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু তাদের (অভিযোগ ওঠা ছাত্র) কাছ থেকে রাতের মধ্যে টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেন।’

টাকা নেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে শাফি বলেন, ‘ফারুকের গতিবিধি ও আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় আমরা তাকে শিবির সন্দেহে আটক করি। তবে টাকা নেওয়ার সঙ্গে আমি জড়িত নই। টাকা নাঈম নিয়েছে।’ তবে এ বিষয়ে নাঈমের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

ঠাকুরগাঁও জেলা সভাপতি সোহানুর রহমান বলেন, ‘বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি শোনার সঙ্গে সঙ্গে আমি বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরকে জানাই। কিন্তু সন্ধ্যা পেরিয়ে মধ্যরাত হয়ে গেলেও প্রক্টর কোনো ব্যবস্থা নেননি।’

তবে প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান পুলিশকে বিষয়টি জানিয়েছে দাবি করলেও ঘটনাস্থলে কোনো পুলিশকে দেখা যায়নি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ও সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ জানান, জিম্মি করে টাকা নেওয়ার বিষয়টি জানতে পেরে তারা ঘটনাস্থলে যান। সেখানে গিয়ে ওমর ফারুকের থেকে থেকে টাকা নেওয়ার সত্যতা পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িত দুজনের মধ্যে যার কাছে টাকা সে পলাতক। তাদের একজনকে ধরা হয়েছে। তার মাধ্যমে রাতের মধ্যেই ফারুককে টাকা ফিরিয়ে দেওয়া হবে এবং তার নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।

** নির্ভরযোগ্য খবর জানতে ও পেতে স্টার মেইলের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন: Star Mail/Facebook


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

পদে পদে চাঁদা নেন ছাত্রলীগের দুই নেত্রী

ফরিদা ও শ্রাবণী কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কমিটিতে পদপ্রত্যাশী। এসব অভিযোগের বিষয়টি ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনকে অবগত

৫০ হাজার টাকা নিয়ে চোর ছেড়ে দিলেন ঢাবি ছাত্রলীগ নেতা!

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলে এক চোরের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে

ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে তিন ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ

ওই ছাত্রলীগ নেতার নাম জাকিউর রাফিদ নাফি। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের