14/12/2018 , ঢাকা

সজিব ওয়াজেদ জয়ের ভুয়া পিএস আটক


প্রকাশিত: 14/12/2018 12:20:03| আপডেট:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি উপদেষ্টা এবং তার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়ের ব্যক্তিগত সহকারী (পিএস) পরিচয় দানকারী এক ব্যক্তিকে আটক করেছে র‌্যাব-১। বৃহস্পতিবার ভোরে গাজীপুরের বোর্ড বাজার এলাকা থেকে দুটি মোবাইল ফোন ও আটটি সিমসহ সাব্বির মণ্ডল (২১) নামে ওই ব্যক্তিকে আটক করা হয়। সাব্বির গাইবান্ধা জেলার উত্তর গুটিয়া সরদার পাড়া এলাকার বাসিন্দা।

র‌্যাব-১-এর পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিটি করপোরেশনের বোর্ড বাজার এলাকায় অভিযান চালায় র‌্যাব-১-এর একটি দল। এ সময় সজীব ওয়াজেদ জয়ের পিএস পরিচয়দানকারী প্রতারক সাব্বির মণ্ডলকে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে  দুইটি মোবাইল ফোন ও আটটি সিমকার্ড উদ্ধার করা হয়েছে।

মামুন আরো জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সাব্বির স্বীকার করেছেন, তিনি দীর্ঘদিন ধরে প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব, কখনো কখনো সজীব ওয়াজেদ জয়ের পিএস সামসুল, মাসুদ, মনির নামে পরিচয় দিয়ে আসছিলেন।

আসন্ন সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাইয়ে দেয়ার কথা বলে বিভিন্ন এমপিদের কাছে টাকা দাবি এবং সচিবালয়সহ বিভিন্ন সরকারি সংস্থায় চাকরি দেওয়ার নামে মানুষের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নেওয়ারও অভিযোগ আছে সাব্বিরের বিরুদ্ধে।

আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, বগুড়া-৫ আসনের এমপি হাবিবুর রহমান, গাইবান্ধা-৩ আসনের এমপি ডা. ইউনুস সরকার, বরিশাল-৫ আসনের এমপি জেবুন্নেসা আফরোজ, খুলনা-৩ আসনের এমপি মনুজান সুফিয়ান,  কক্সবাজার-৪ আসনের এমপি  আব্দুর রহমান, সিলেট-৩ আসনের এমপি মাহমুদুর সামাদ, গাজীপুর-৫ আসনের এমপি মেহের আফরোজ চুমকি, গাজীপুর-৩ আসনের এমপি অ্যাডভোকেট রহমত আলী, লালমনির হাট-১ আসনের এমপি মোতাহার হোসেন,  নারায়ানগঞ্জের এমপি শামীম ওসমান এবং গোলাম দস্তগীর গাজী, ঢাকার এমপি অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনসহ ৩০ থেকে ৪০ জন এমপির কাছে মোবাইল ফোনে, আবার কখনো কখনো এসএমএস-এর মাধ্যমে একাদশ জাতীয় নির্বাচনে মনোনয়ন দেওয়ার কথা বলে প্রত্যেকের কাছে লাখ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করতেন  সাব্বির।

এ ছাড়া বিভিন্ন মন্ত্রী, এমপি, সচিব, ব্যবসায়ীদেরকে ফোন দিয়ে বিভিন্ন চাঁদা, ঘুষ ও চাকরি তদবির করে আসছিলেন সাব্বির মণ্ডল।

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে, সচিবালয়সহ বিভিন্ন সরকারি সংস্থায় চাকরি দেওয়ার নামেও বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন বলে স্বীকার করেছেন এই প্রতারক।


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

প্রেস থেকে ঝিনাইদহের বিএনপি প্রার্থীর পোস্টার ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

বিএনপি দলীয় প্রার্থীর হাজার হাজার পোস্টার-লিফলেট জোর করে তুলে মিনি ট্রাকসহ নিয়ে যায়।

চলুন, এই বাবাকে খুঁজে বের করি

সকাল ৯টার দিকে বাসা থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর এখনও পর্যন্ত তিনি বাসায় ফেরেননি। বাসা থেকে

জঙ্গলে ধ্যান করে গিয়ে চিতার পেটে বৌদ্ধ ভিক্ষু

জঙ্গলের ভেতরে একটি মন্দিরে থাকেন। কিন্তু বুধবার সকালে তিনি ওই মন্দির থেকে বেশ কিছুটা দূরে ধ্যান করতে যান।

মন্তব্য লিখুন...

Top