26/06/2019 , ঢাকা

সিমলার কথা- আমি কিছুই জানি না


প্রকাশিত: 26/06/2019 08:21:34| আপডেট:

পলাশ মারা গেছে। এই নিয়ে আমি কথা বলতে চাই না। কারণ ও আমার কেউ না- সম্প্রতি চট্টগ্রামে চাঞ্চল্যকর বিমান ছিনতাই চেষ্টার ঘটনায় অভিযুক্ত নিহত পলাশের কাছ থেকে ৭০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে এ কথাগুলো বলেন চিত্রনায়িকা সিমলা। মঙ্গলবার মুঠোফোনে কথা হয় এ আলোচিত নায়িকার সঙ্গে। তিনি বর্তমানে ভারতের মুম্বইয়ে রয়েছেন।

তদন্তের এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসা বিষয়ে সিমলা বলেন, যারা তদন্ত করছেন তারা তদন্ত করুক। তদন্ত যখন শেষ হবে তখনইতো আপনারা জানতে পারবেন বিষয়টি। আমার কিছু বলার নেই এখানে। যারা তদন্ত করছেন তাদেরকে প্রশ্ন করুন। আমাকে প্রশ্ন করছেন কেন? আমি এটার সঙ্গে রিলেটেড না। আমি এ ব্যাপারে আর কোনো কথা বলতে চাই না।

এদিকে বিমান ছিনতাই চেষ্টার ঘটনায় সম্প্রতি চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়েছেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা। ঘটনার নেপথ্যে সিমলার সঙ্গে পলাশের বিচ্ছেদের ঘটনাই শুধু ছিল না, তার কাছ থেকে ৭০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার বিষয়ও ছিল। বিভিন্ন জনের কাছ থেকে ধার-দেনা করে এ অর্থ সিমলাকে দিয়েছিলেন পলাশ। পলাশের বাবা-মাসহ অন্তত ১৬ জনের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা, চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের পরিদর্শক রাজেশ বড়ুয়া। তিনি জানিয়েছেন, চিত্রনায়িকা সিমলা বর্তমানে একটি সিনেমায় শুটিং করার নামে ভারতে অবস্থান করছেন। দেশে ফিরতে বিলম্ব করছেন তিনি। রাজেশ বড়ুয়া আরো বলেন, গত ২৪শে ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় বিমানবন্দরে কমান্ডো অভিযানে পলাশ আহমেদ নিহত হওয়ার সময় তার নাম-ঠিকানা জানা যায়নি। তখন তাকে বলা হচ্ছিল নায়িকা সিমলার প্রেমিক হিসেবে।

তিনি বিমানের ক্রুদের জিম্মি করে পারিবারিক সমস্যা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছিলেন। পরে ধীরে ধীরে উদঘাটিত হয়, নিহত পলাশ চিত্রনায়িকা শামসুন নাহার সিমলার স্বামী।

তদন্ত সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, পলাশ লন্ডন পাঠানোর নাম করে বিভিন্নজনের কাছ থেকে প্রায় ৭০ লাখ টাকা সংগ্রহ করেছিলেন। এ টাকা সিমলার হাতে তিনি তুলে দিতে বাধ্য হয়েছিলেন। সিমলার সঙ্গে প্রভাবশালী কিছু ব্যাক্তিরও সুসম্পর্ক ছিল, যার কারণে একটা সময় পর সিমলার কাছে যেতে পারছিলেন না পলাশ। আর তারপরই বিমান ছিনতাই চেষ্টার মতো কাণ্ড ঘটান তিনি।

উল্লেখ্য, পলাশ শখের বসে নাটক ও স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করতেন। সে সূত্রে সিমলার সঙ্গে তার পরিচয় হয়। একসময় বিয়েও করেন তারা। কিন্তু কয়েকমাসের মধ্যেই তাদের ডিভোর্স হয়ে যায়।

 


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

ঝিনাইদহে স্ত্রীর সাথে যৌন মিলনের ছবি ফেসবুকে দিলেন পুলিশ সদস্য

বিষয়টি নিয়ে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান বলেন, আমি শুনেছি শোভন কর্মস্থলে গরহাজির থাকে। তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

ঝিনাইদহে মাদক মামলায় ব্যবসায়ীর যাবজ্জীবন

মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। বিচারক দীর্ঘ শুনানি শেষে আসামি আনিছুর রহমানকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড

ঝিনাইদহে সাবেক স্বামীর ছুরিকাঘাতে নারী জখম

আয়াতুল্লাহ বেহেস্তী তার সহকর্মী জান্নাতুল নাহারের সাথে অফিসে দেখা করতে আসে। এক পর্যায়ে তারা অফিসের বাইরে বারান্দায় গেলে জান্নাতুলকে ধারালো কিছু দিয়ে মুখে, পিঠে আঘাত করে।

মন্তব্য লিখুন...

Top