22/08/2019 , ঢাকা

৩৭ লাখ টাকায় বিক্রি হলো ‘বস’!


প্রকাশিত: 22/08/2019 18:17:53| আপডেট:

স্টার মেইল, ঢাকা: ঈদুল আজহার আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। রাজধানীতে জমে উঠেছে পশুর হাট। বাজারে বেচা-কেনা না থাকলেও দেশের রেকর্ড গড়া দামে বিক্রি হয়েছে ‘বস’ নামের গরুটি। এটি বিক্রি হয়েছে ৩৭ লাখ টাকায়। মালিকের দাবি বাংলাদেশের ইতিহাসে এর চেয়ে বেশি দামে আর গরু বিক্রি হয়নি। এটি রেকর্ড!

এবার ঈদের সবচেয়ে বেশি দামের পশু ‘বস’ গরু ক্রয় করেছেন ইসলাম গার্মেন্টসের মালিক শাকির আহমেদ। তিনি ঢাকা উত্তর সিটি কপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলামের ভাতিজা। শাকির আহমেদ বলেন, আল্লাহ রাস্তায় সর্বোচ্চ উৎসর্গ করার জন্য এ ‘বস’ গরুটি কিনেছি। সবাই দোয়া করবেন।

মোহাম্মদপুর বেড়িবাঁধ এলাকার সাবিক অ্যাগ্রো খামারের মালিক ইমরান হোসাইন এই গরুর মালিক। তিনি বলেন, আমার খামারে মোট এক হাজার ৪০০ গরু ছিল। তারমধ্যে ‘বস’ ছিল সবচেয়ে বড় জাতের গরু। এতে মাংস হবে এক হাজার ৪০০ কেজি। এ ছাড়া তার খামারে আরো বড় ধরনের গরু বিক্রি হয়েছে। তা হলো- মেসি ২৭ লাখ টাকা, টাইটানিক ১৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

বিক্রির অপেক্ষায় আছে ‘টাইগার’; যার মূল্য হাঁকা হচ্ছে ২৫ লাখ টাকা। ‘রোজো’র মূল্য হাঁকা হচ্ছে ৩০ লাখ টাকা। এ ছাড়া বিভিন্ন দামের এক হাজার গরু বিক্রি করেছেন ইমরান হোসাইন।

ইমরান হোসাইন আরো বলেন, ‘এবারের ঈদের জন্য আমার খামারে এক হাজার ৪০০ গরু প্রস্তুত করেছি। তন্মধ্যে এক হাজার গরু ইতিমধ্যে বিক্রি হয়ে গেছে। এবারে একটু ব্যতিক্রম দেখলাম, তা হলো ক্রেতারা আগেই গরু কিনে নিচ্ছে। আমার গরু বাজারে নিতে হচ্ছে না। বরং খামারে সব গরু বিক্রি করে ফেলছি।’

বুধবার গাবতলী পশুর হাটে গিয়ে দেখা যায়, গাবতলী পশুর হাটে সবচেয়ে বেশি গরু উঠেছে। তবে এখন পর্যন্ত তেমন বিক্রি হচ্ছে না। ক্রেতার তুলনায় দেখার লোকই বেশি। হাটের মাঝখানে রাখা হয়েছে বড় বড় গরু। এর মধ্যে ঝিনাইদহ থেকে এসেছে ‘যুবরাজ’ ও ‘রবি’। এ দুটি গরু দেখতে গাবতলীর হাটে ভিড় জমাচ্ছে শত শত মানুষ। দেখতে আসা সাধারণ মানুষ গরু দেখে বিভিন্ন মন্তব্য করছে।

অনেক কিশোর বিভিন্নভাবে দাঁড়িয়ে এসব গরুর সঙ্গে মুঠোফোনে সেলফি তুলছে। কেউবা গরুটিকে একবার ধরে দেখে মনের ইচ্ছে পূরণ করছে।


  
এ সম্পর্কিত আরও খবর...

ঝিনাইদহে হিজড়াদের বিচার চাইলেন হিজড়ারা

লিঙ্গ কর্তনকারী হিজড়াদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, বিভিন্ন অপকর্মে প্রতিবাদ,

ঝিনাইদহে সাপের কামড়ে কিশোরের মৃত্যু

ওঝার কাছে ঝাড়ফুঁক করার পর কিছুটা সুস্থবোধ করলে সাকিবকে বাড়িতে আনা হয়।

স্পিরিটের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ, হয়ে যাচ্ছে বিদেশি ব্র্যান্ডের মদ!

অনুমোদিত বিভিন্ন বার ও ক্লাব থেকে বিদেশি মদের খালি বোতল সংগ্রহ করে ভেজাল মদ ঢুকিয়ে নতুন লেভেল লাগিয়ে বাজারজাত করা হচ্ছে।

মন্তব্য লিখুন...

Top