1. admin@starmail24.com : admin :
  2. editor@starmail24.com : editor@starmail24.com :
নতুন রূপে করোনা, সারা বৃটেনে কঠোর বিধিনিষেধের কথা বিবেচনা করছে মন্ত্রিপরিষদ - starmail24
শিরোনাম :
মাদক নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে এসডিজি বাস্তবায়ন সম্ভব হবে না ‘অল্প স্বল্প গল্প’ নিয়ে ফিরলেন আরজে রিজন মালয়েশিয়ায় এপ্রিলের শেষ সাপ্তাহ থেকে প্রায় ১ লাখ ৮০ হাজার বিদেশি কর্মী প্রবেশ করতে পারে ! ইফতার আয়োজনে ‘সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য’ মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের ৮ বছরের অন্তঃদ্বন্ধের সমাধান গ্রামীণ টেলিকম শ্রমিক কর্মচারীদের অসন্তোষ, নোবেল বিজয়ী ডক্টর মোহাম্মদ ইউনুসের নিরাবতা দেশ গড়ার বাস্তবায়নে জনগণের পাশে থেকে কাজ করুন, প্রশাসন ক্যাডারদের প্রধানমন্ত্রী পাকিস্তানের আইনসভা ভেঙে দিলেন প্রেসিডেন্ট, ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন মুখ দেখানোতে আপত্তি, ছবির বদলে বায়োমেট্রিকের নিয়ম দাবি জীবন বীমার সাবেক এমডি জহুরুল হকের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা




নতুন রূপে করোনা, সারা বৃটেনে কঠোর বিধিনিষেধের কথা বিবেচনা করছে মন্ত্রিপরিষদ

স্টার মেইল ডেস্ক:
  • সর্বশেষ আপডেট : বুধবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০

বৃটেনে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) নতুন রূপটি সর্বত্র ছড়িয়ে পড়া রোধে দেশের আরও বেশি অঞ্চল তথা সারা দেশ বিধিনিষেধের আওতায় আনার বিষয়টি বিবেচনা করছে মন্ত্রিপরিষদ। কেবিনেট মিনিস্টার রবার্ট জেন্রিক বলেছেন, বর্তমান বিধিগুলি যথেষ্ট শক্তিশালী কিনা তা নিয়ে ১০ ডাউনিং স্ট্রিট আজ সিদ্ধান্ত নেবে।

মন্ত্রী জানিয়েছেন, বক্সিং ডে কড়াকড়ি আরও প্রশস্ত করার কোনও তাৎক্ষণিক পরিকল্পনা নেই। তবে ভাইরাস সংক্রমনের সংখ্যা বাড়ছে। বৃটেনের প্রধান বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা বলেছেন, অতিরিক্ত কড়াকড়ি (কার্বের) প্রয়োজন হতে পারে।

স্যার প্যাট্রিক ভ্যালেন্স সোমবার ডাউনিং স্ট্রিটের ব্রিফিংয়ে বলেছিলেন, কিছু কিছু জায়গায় আরো কঠোর হওয়া দরকার, মোটেও শিথিল করা উচিত নয়। লন্ডন এবং সাউথ ইস্ট ইংল্যান্ডের বৃহৎ অংশগুলিকে টিয়ার-৪ তথা নতুন চার স্তরের নিয়মের অধীনে আনার বিষয়টি ৩০ ডিসেম্বর পর্যালোচনা করার কথা রয়েছে। বরিস জনসনের সভাপতিত্বে কোভিড অপারেশন কমিটি বুধবার বৈঠক করবেন বলে রবার্ট জেন্রিক জানিয়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, শক্তিশালী টিয়ার সিস্টেমকে ধরে রাখার চেষ্টা হবে। সারা দেশে একটি আনুপাতিক দৃষ্টিভঙ্গিতে গ্রহণ করা হতে পারে। সরকারী পরিসংখ্যান অনুসারে গতকাল মঙ্গলবার যুক্তরাজ্যে আরও ৩৬,৮০৪ জন ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং ৬৯১ জন মারা গেছেন।।




আরো পড়ুন