1. admin@starmail24.com : admin :
  2. editor@starmail24.com : editor@starmail24.com :
টিকটক করতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী, দুই কিশোরকে গ্রেপ্তার - starmail24
শিরোনাম :
মাদক নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে এসডিজি বাস্তবায়ন সম্ভব হবে না ‘অল্প স্বল্প গল্প’ নিয়ে ফিরলেন আরজে রিজন মালয়েশিয়ায় এপ্রিলের শেষ সাপ্তাহ থেকে প্রায় ১ লাখ ৮০ হাজার বিদেশি কর্মী প্রবেশ করতে পারে ! ইফতার আয়োজনে ‘সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য’ মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের ৮ বছরের অন্তঃদ্বন্ধের সমাধান গ্রামীণ টেলিকম শ্রমিক কর্মচারীদের অসন্তোষ, নোবেল বিজয়ী ডক্টর মোহাম্মদ ইউনুসের নিরাবতা দেশ গড়ার বাস্তবায়নে জনগণের পাশে থেকে কাজ করুন, প্রশাসন ক্যাডারদের প্রধানমন্ত্রী পাকিস্তানের আইনসভা ভেঙে দিলেন প্রেসিডেন্ট, ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন মুখ দেখানোতে আপত্তি, ছবির বদলে বায়োমেট্রিকের নিয়ম দাবি জীবন বীমার সাবেক এমডি জহুরুল হকের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা




টিকটক করতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার কিশোরী, দুই কিশোরকে গ্রেপ্তার

স্টার মেইল ডেস্ক:
  • সর্বশেষ আপডেট : রবিবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০২০

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের টিকটক-এ কাজ করার জন্য টঙ্গীর দত্তপাড়া এলাকার এক কিশোরীকে (১৩) ডেকে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগে দুই কিশোরকে (টিকটক সেলিব্র্যাটি) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- ঢাকার গেণ্ডারিয়ার শরৎচন্দ্র রোড এলাকার বাসিন্দা মো. মোফাজ্জল ব্যাপারীর ছেলে মো. শিশির ব্যাপারী (১৭) এবং ঢাকার গেণ্ডারিয়ার বাসিন্দা আনোয়ার হোসেনের ছেলে জুনায়েদ ইসলাম ফাহিম (১৭)।

টঙ্গী পশ্চিম থানার ওসি মো. দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, ভিকটিম স্থানীয় দত্তপাড়া এলাকার টঙ্গী রিপাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী। সে টিকটক ভিডিও তৈরি করতো। দেশের বিভিন্ন জেলায় টিকটক তৈরি করে এমন কিছু বন্ধুদের সঙ্গে ফেসবুকে পরিচয় হয় নির্যাতিতা ঐ কিশোরীর। ২৩ ডিসেম্বর বিকেল ৪টার দিকে টঙ্গীর দত্তপাড়া এলাকার ওই কিশোররা ফেসবুকের সেলিব্র্যাটি পরিচয় দিয়ে টিকটকে কাজ করার জন্য তাদের বাসা থেকে ঢাকার গেণ্ডারিয়া এলাকায় নিয়ে যায়।

পরে একটি বাসায় তাকে কয়েকজন মিলে গণধর্ষণ করে। পরদিনও মেয়ের কোনো সন্ধান না পেয়ে তার মা টঙ্গী পূর্ব থানায় একটি জিডি করেন। এ জিডির পর পুলিশ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান শুরু করে। পরে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকার হাতিরঝিল মধুবাগ এলাকার একটি বিকাশের দোকানের সামানে থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার এবং ঢাকার গেণ্ডারিয়া, নারিন্দার শরৎচন্দ্র রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই দুইজনকে আটক করা হয়।

পরে শনিবার আগের দায়ের করা জিডিটি মামলা আকারে নেয়া হয় এবং আটকদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়। তাদের নিয়ে শনিবার আরো তিন সহযোগীকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চালানো হয়। রোববার তাদের আদালতে পাঠানো হবে। কিশোরীকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।




আরো পড়ুন