1. admin@starmail24.com : admin :
  2. editor@starmail24.com : editor@starmail24.com :
‘জামায়াতের রাজনীতির কারণেই আলেমরা বিতর্কিত হয়েছে’ - starmail24
শিরোনাম :
মালয়েশিয়ার ক্যাম্পে থাকা বাংলাদেশীদের দ্রুত দেশে প্রেরণে ক্যাম্প কমান্ডারকে অনুরোধ বাংলাদেশ হাইকমিশনারের বাংলাদেশ প্রেসক্লাব অব মালয়েশিয়ার মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত রাজারবাগ পী‌রের প‌ক্ষে প্রধানমন্ত্রীর হস্ত‌ক্ষেপ কামনা মালয়েশিয়ায় বিএনপি কর্তৃক বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা ও বিদেশে চিকিৎসা পাঠানোর জন্য দোয়া মাহফিল দেশে দ্বিতীয় ডোজের আওতায় সাড়ে তিন কোটির বেশি মানুষ সাংবাদিক গোলাম ময়নুল আহসানের পিতার ইন্তেকালে ডিআরইউ’র শোক প্রকাশ ‘জামায়াতের রাজনীতির কারণেই আলেমরা বিতর্কিত হয়েছে’ প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা উলামা পীর মাশায়েখ ঐক্য পরিষদের মালয়েশিয়ার পেনাং রাজ্যের শিল্পমালিকগণ বাংলাদেশ থেকে প্র্রকৌশলী নিয়োগে আগ্রহী সাংবাদিক আতিকের বাবার মৃত্যুতে মির্জা ফখরুলের শোক




‘জামায়াতের রাজনীতির কারণেই আলেমরা বিতর্কিত হয়েছে’

স্টার মেইল, খুলনা
  • সর্বশেষ আপডেট : শনিবার, ২০ নভেম্বর, ২০২১

ইউনাইটেড ইসলামী পার্টির আয়োজনে খুলনায় ‘সাম্প্রদায়িক অপশক্তি জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আলেম ওলামাদের করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় গোলযোগ ও বিশৃঙ্খলার ঘটনা ঘটেছে।

শনিবার বেলা ১১ টায় খুলনা প্রেসক্লাবে ইউনাইটেড ইসলামী পার্টি আয়োজিত সভায় কুমিল্লায় মন্দিরে কুরআন রাখা ও পরবর্তীতে সংঘটিত ঘটনা তুলে ধরে বক্তব্য দেওয়াকে কেন্দ্র করে গোলযোগের ঘটনা ঘটে।

ইউনাটেড ইসলামী পার্টির চেয়ারম্যান মাওলানা মোহাম্মদ ইসমাইল হোসাইন বলেন, কুমিল্লায় হিন্দুদের পুজা মন্ডপে পবিত্র কুরআন শরীফ রেখে সাম্প্রদায়িক শান্তি নষ্ট করা এবং দেশে বড় ধরনের সহিংসতা ঘটনোর প্রচেষ্টা চালায় বিএনপি-জামায়াতের লোকজন। যা নিয়ে দেশের গোয়েন্দামহল উদঘাটন করেছে। মুসলমান হিসেবে কুরআন নিয়ে রাজনীতি করা ঠিক না। এই বিষয়টি নিয়ে অনুষ্ঠানে আমি বক্তৃতা দিতে শুরু করলেই জামায়াতের তিন নেতা হইচই শুরু করে দেয়। জামায়াতের রাজনীতির কারণেই আলেম ওলামারা আজ বিতর্কিত হয়েছে।

ইউনাটেড ইসলামী পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আলহাজ্ব মো. শাহিন খান বলেন, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও পার্টির চেয়ারম্যান মাওলানা মোহাম্মদ ইসমাইল হোসাইন কুমিল্লার ঘটনা তুলে ধরে বক্তব্য দানকালে একটি অংশ বিক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠে। এ সময় কিছুক্ষণ সভা বন্ধ ছিল।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নিয়ে দেশের মধ্যে বর্তমানে যে ঘোলাটে পরিস্থিতি বিরাজ করছে তা নিঃসন্দেহে বিরোধীদলীয় অপশক্তির চক্রান্ত। দেশের মধ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠায় নজিরবিহীন ভূমিকা রেখেছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং এর পরবর্তীতে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে এই ধর্মীয় সম্প্রীতি বিষয়টিকে নিয়ে বর্তমানে কিছু অতি উৎসাহী গোষ্ঠীর সন্ধান মিলেছে। কিছু কুচক্রী মহল সরকারের এই অবদানকে কলুষিত করার জন্য অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এর বিরুদ্ধে দেশের আলেম ওলামাদের সচেষ্ট থাকতে হবে।

খুলনা আলিয়া মাদ্রাসার মাওলানা রিয়াজুল ইসলাম বলেন, সভায় একজন বক্তা পক্ষপাতমূলক বক্তব্য দিয়েছেন। নিরপেক্ষ অনুষ্ঠানে পক্ষপাতমূলক বক্তব্যের প্রতিবাদ জানানো হয়।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন পার্টির প্রেডিয়াম সদস্য হাফেজ মাওলানা মোস্তফা চৌধুরী, মাওলানা মোহাম্মদ আব্দুর রহমান, মাওলানা মোহাম্মদ আবুল খায়ের জাকারিয়া, মাওলানা মোহাম্মদ নাছির উদ্দীন কাশেমী, মাওলানা মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া, মাওলানা মোহাম্মদ রফিকুর রহমান, ক্বারী মোহাম্মদ ইমদাত প্রমুখ।




আরো পড়ুন