1. admin@starmail24.com : admin :
  2. editor@starmail24.com : editor@starmail24.com :
বান্দরবানের রুমায় সন্ত্রাসীদের হামলা, এক সেনাসদস্য ও তিন সন্ত্রাসী নিহত - starmail24
শিরোনাম :
মালয়েশিয়ায় এপ্রিলের শেষ সাপ্তাহ থেকে প্রায় ১ লাখ ৮০ হাজার বিদেশি কর্মী প্রবেশ করতে পারে ! ইফতার আয়োজনে ‘সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য’ মালয়েশিয়া আওয়ামীলীগের ৮ বছরের অন্তঃদ্বন্ধের সমাধান গ্রামীণ টেলিকম শ্রমিক কর্মচারীদের অসন্তোষ, নোবেল বিজয়ী ডক্টর মোহাম্মদ ইউনুসের নিরাবতা দেশ গড়ার বাস্তবায়নে জনগণের পাশে থেকে কাজ করুন, প্রশাসন ক্যাডারদের প্রধানমন্ত্রী পাকিস্তানের আইনসভা ভেঙে দিলেন প্রেসিডেন্ট, ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন মুখ দেখানোতে আপত্তি, ছবির বদলে বায়োমেট্রিকের নিয়ম দাবি জীবন বীমার সাবেক এমডি জহুরুল হকের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা হাজী সেলিমের স্ত্রীর ৫৪তম জন্মবার্ষিকী আজ নির্বাচন কমিশনার হতে চান স্বাস্থ্যের সেই বিতর্কিত সিরাজুল হক খান




বান্দরবানের রুমায় সন্ত্রাসীদের হামলা, এক সেনাসদস্য ও তিন সন্ত্রাসী নিহত

স্টার মেইল ডেস্ক:
  • সর্বশেষ আপডেট : বৃহস্পতিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

বান্দরবানের রুমায় সেনাবাহিনীর একটি টহল দলের ওপর সন্ত্রাসীদের হামলায় এক সেনাসদস্যের মৃত্যু হয়েছে। এসময় সেনাবাহিনীর পাল্টা গুলিতে নিহত হয়েছে তিন সন্ত্রাসী। বৃহস্পতিবার সকালে বিষয়টি জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)।

আইএসপিআরের সহকারী পরিচালক রাশেদুল আলম খান স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বান্দরবানের রুমায় সেনাবাহিনীর ওপর সন্ত্রাসীদের হামলা। এক সেনা সদস্য ও তিনজন সন্ত্রাসী নিহত।’

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার (২ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ১০টার দিকে সেনাবাহিনীর সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে ১১ সদস্যের একটি দল রুমা জোনের আওতায় জেইংগা পাড়ায় এবং সেফ পাড়া এলাকায় সেনাবাহিনীর একটি বিশেষ টহল দল পরিদর্শনে যায়। এসময় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি-জেএসএসের সশস্ত্র দল তাদের ওপর হামলা করে। এ সময় সিনিয়র অফিসার হাবিবুর রহমানের মাথায় এবং সৈনিক ফিরোজ হোসেনের পায়ে গুলি লাগে। আত্মরক্ষার্থে সেনাবাহিনী গুলি চালালে জেএসএস-এর তিন সদস্য নিহত ও একজন আহত হয়। সৈনিক ফিরোজ বর্তমানে চট্টগ্রাম সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পরে অভিযানে সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত ১টি এসএমজি, ২৪৯ রাউন্ড তাজা গুলি, ৩টি অ্যাম্যুনিশন ম্যাগাজিন, ৩টি গাদা বন্দুক, গাদা বন্দুকের ৫ রাউন্ড গুলি, ৪ জোড়া ইউনিফর্ম এবং চাঁদাবাজির নগদ ৫২ হাজার ৯০০ টাকা উদ্ধার করা হয়।

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) প্রধান হলেন জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় (সন্তু) লারমা। তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদেরও চেয়ারম্যান।




আরো পড়ুন