1. admin@starmail24.com : admin :
  2. editor@starmail24.com : editor@starmail24.com :
শিরোনাম :
প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা লড়াই চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার ইমরান খানের দল পিটিআই মিয়ানমার থেকে সশস্ত্র অবস্থায় কারও বাংলাদেশে ঢোকার সুযোগ নেই : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মালয়েশিয়ায় নির্মাণাধীন ১৩ তলা ভবন থেকে পড়ে এক বাংলাদেশির মৃত্যু বিপিএলে উড়ছে রংপুর রাইডার্স জোট গঠন করে সরকারে আসবে ইমরানের পিটিআই অবৈধ মোবাইল ফোন আগামী জুলাই মাসে বন্ধ হতে পারে জানালেন প্রতিমন্ত্রী জাতীয় পার্টি থেকে জিএম কাদের-চুন্নুকে বহিষ্কার করলেন রওশন এরশাদ সৌদি আরবে এক সপ্তাহে ১৫ হাজারের বেশি অভিবাসী গ্রেপ্তার ৩০ জানুয়ারি সারা দেশে কালো পতাকা মিছিল কর্মসূচি বিএনপির




সাইফার মামলায় জামিন পেলেন ইমরান খান

স্টার মেইল ডেস্ক:
  • সর্বশেষ আপডেট : শুক্রবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২৩

সাইফার বা গোপন তারবার্তা ফাঁসের মামলায় পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খান এবং সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মাহমুদ কুরেশি জামিন পেয়েছেন। শুক্রবার (২২ ডিসেম্বর) পিটিআইয়ের জামিন আবেদনের ওপর শুনানি করে ১০ লাখ রুপি জামানতের বিনিময়ে তাদের জামিন মঞ্জুর করেছেন পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট। খবর দ্য ডনের।

বিচারপতি সরদার তারিক মাসুদের নেতৃত্বে বিচারপতি আতহার মিনাল্লাহ ও সৈয়দ মনসুর আলী শাহের সমন্বয়ে গঠিত তিন সদস্যের সুপ্রিম কোর্টের একটি বেঞ্চ পিটিআইয়ের এই দুই নেতাকে জামিন দিয়ে আদেশ জারি করেছেন।

ইমরান খান ও মাহমুদের বিরুদ্ধে সাইফার মামলাটি করেছে পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফআইএ)। মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত বছর ওয়াশিংটনে নিযুক্ত পাকিস্তানি রাষ্ট্রদূত ইসলামাবাদে একটি গোপন নথি পাঠিয়েছিলেন। তিনি এটি প্রকাশ করে রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তার আইন লঙ্ঘন করেছেন। যদিও ইমরান এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। পিটিআইয়ের দাবি, এই নথিতে ইমরানকে ক্ষমতাচ্যুত করতে যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি ছিল। একই মামলায় সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশিকেও আসামি করা হয়। তিনিও নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন।

গত ১৩ ডিসেম্বর সাইফার মামলায় ইমরান ও মাহমুদকে দ্বিতীয়বারের মতো অভিযুক্ত করা হয়। এরপর অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে প্রতিষ্ঠিত বিশেষ আদালত আদিয়ালা জেলা কারাগারে গত সপ্তাহে নতুন করে সাইফার মামলার বিচারকাজ শুরু হয়। ২৩ অক্টোবর এই মামলায় তাদের দুজনকে প্রথমবারের মতো অভিযুক্ত করা হয়েছিল। এরপর থেকে আদিয়ালা কারাগারে তাদের বিচারকাজ হচ্ছিল।




আরো পড়ুন